বুধবার, ২২ Jun ২০২২, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নৌকা স্বাধীনতা ও উন্নয়নের প্রতীক : কানতারা খান – দৈনিক বাংলাদেশে সংবাদ নিয়ামতপুরে রাধা গোবিন্দ মন্দিরে মহা প্রভুর ভোগ উপলক্ষে লীলা কীর্তন অনুষ্ঠিত কাশিয়ানী সদর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মসিউর রহমান খানের আলোচনা ও মতবিনিময়সভা কাশিয়ানীতে ১০টি ঢালসহ আটক ২ – দৈনিক বাংলাদেশে সংবাদ পারুলিয়া ইউপি নির্বাচন : প্রার্থিতা ফিরে পেলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম কাশিয়ানী সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত প্রবাসী ফাউন্ডেশন নারায়ণপুর ইউনিয়ন শো-ডাউন করে ফরম জমা দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মসিউর রহমান খান কাশিয়ানীতে প্রধানমন্ত্রীর শারদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠান কাশিয়ানী সদর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ফর্ম জমা দিলেন আঃ ছত্তার শেখ – দৈনিক বাংলাদেশ সংবাদ
আগরতলা ও ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের যৌথ উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত

আগরতলা ও ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের যৌথ উদ্যোগে মাতৃভাষা দিবস পালিত

নুরুল আলম : আগরতলায়অবস্থিত বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন যথাযথ মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্যাপন করেছে। দিবসটি উপলক্ষে সকালে সহকারী হাইকমিশন প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা অর্ধনিমিতকরণের পর পরই বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন, আগরতলা ও ত্রিপুরা সরকারের যৌথ উদ্যোগে “শিক্ষা সমাজে হোক বহু ভাষার লালন” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে একটি বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি রবীন্দ্র শতবার্ষিকী থেকে যাত্রা শুরু করে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পদক্ষিণ করে রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে গিয়ে সমাপ্তি হয়। এরপর রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবন প্রাঙ্গনে ভাষা শহীদদের স্মরণে অস্থায়ী শহীদ পুষ্পস্তর্বক অর্পণ করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা সরকারে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব, রাজস্ব ও মৎস্য দপ্তর নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মা মন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ, বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনার মোহাম্মদ জোবায়েদ হোসেন সহ শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
মোহাম্মদ জোবায়েদ হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, সালাম, বরকত, রফিক, জাব্বার ও শফিউলসহ সকল ভাষা শহীদদের স্মরণের পাশাপাশি গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, যিনি বাঙ্গালি জাতীর বঞ্চনা ও নির্যাতন থেকে মুক্তির লক্ষ্যে স্বাধীনতা অর্জনের সুদীর্ঘ সংগ্রামে ১৯৪৮ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত নেতৃত্ব দিয়েছেন যার ফলশ্রুতিতে বাঙ্গালির স্বাধীকার আদায়ের ধারাবাহিকতায় ভাষা, সংস্কৃতি ও স্বকীয়তার ভিত্তিতে আমরা অর্জন করেছি স্বাধীন, সার্বভৌম বাংলাদেশ। তিনি আরও বলেন, যে জাতির ভাষা সংস্কৃতির শিকড় যত গভীর সে জাতীর ভবিষ্যৎ তত উজ্জ্বল।
এরপর ত্রিপুরার বিভিন্ন ভাষাবাষী তাদের নিজ নিজ ঐতিহ্যবাহী পোষাকে সজ্জিত হয়ে মঞ্চে এসে মাতৃভাষার তাদের অভিব্যক্তি ব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দূতাবাস প্রাঙ্গনে ভাষা শহীদদের স্মরণে ১মিনিট দাড়িয়ে নিরবতা পালন, বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা এরপর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দেয়া বাণী পাঠ করা হয়।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © dainikbangladeshsangbad 2019
Design By MrHostBD