বুধবার, ২২ Jun ২০২২, ০৫:৩২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নৌকা স্বাধীনতা ও উন্নয়নের প্রতীক : কানতারা খান – দৈনিক বাংলাদেশে সংবাদ নিয়ামতপুরে রাধা গোবিন্দ মন্দিরে মহা প্রভুর ভোগ উপলক্ষে লীলা কীর্তন অনুষ্ঠিত কাশিয়ানী সদর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মসিউর রহমান খানের আলোচনা ও মতবিনিময়সভা কাশিয়ানীতে ১০টি ঢালসহ আটক ২ – দৈনিক বাংলাদেশে সংবাদ পারুলিয়া ইউপি নির্বাচন : প্রার্থিতা ফিরে পেলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম কাশিয়ানী সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত প্রবাসী ফাউন্ডেশন নারায়ণপুর ইউনিয়ন শো-ডাউন করে ফরম জমা দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মসিউর রহমান খান কাশিয়ানীতে প্রধানমন্ত্রীর শারদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠান কাশিয়ানী সদর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ফর্ম জমা দিলেন আঃ ছত্তার শেখ – দৈনিক বাংলাদেশ সংবাদ
কাশিয়ানীতে সরকারি গাছ বেচলেন ইউপি চেয়ারম্যান

কাশিয়ানীতে সরকারি গাছ বেচলেন ইউপি চেয়ারম্যান

কাশিয়ানী প্রতিনিধি :

যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বি.এম হারুন-আর রশীদ পিনু বিশ্বাস সরকারি ২টি গাছ বিক্রয় করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় লোকজন বলেন, উপজেলার রাতইল বাজারের পশ্চিম পাশে নদীর পাড় ধরে অধিকাংশ সরকারি খাস জমি। সরকারি জমির একটি তালগাছ ও একটি রেইনট্রি গাছ চেয়ারম্যান বিক্রি করেছেন। ৬ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আনিসুজ্জামান মুন্না মোল্লা গাছ দুটি ক্রয় করে কেটে নিয়ে যায়। তবে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সরকারি এ গাছ কাটার অনুমতি নিয়েছেন কিনা বলতে পারি না।

ইউপি মেম্বার মুন্না মোল্লার সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, ২২ হাজার টাকায় একটি তালগাছ ও একটি রেইনট্রি গাছ তিনি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে কিনেছেন। এটা সরকারি জমির গাছ কি-না তিনি জানেন না তবে ওখানকার নদীর পাড়ের অধিকাংশ জমি খাস বলে তিনি জানান।

তারাইল ইউনিয়ন উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা শংকর কুমার বাড়ৈ বলেন, উপজেলার রাতইল ইউনিয়নে সরকারি জায়গার গাছ কাটা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে উপস্থিত হয়ে গাছ কাটতে বাঁধা দেই। পরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে চৌকিদার লুৎফার শেখের জিম্মায় গাছ দুটি রেখে আসি। পরবর্তীতে জানতে পারি কাউকে কিছু না জানিয়ে গাছ দুটি কেটে নিয়ে যায়। তিনি এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন ইউএনওর কাছে পাঠিয়েছেন।

এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার বি.এম হারুন আর রশীদ পিনু বিশ্বাসের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

ইউএনও রথীন্দ্র নাথ রায় বলেন, তারাইল ভুমি অফিস থেকে একটি প্রতিবেদন পেয়েছি। অনুমতি ছাড়া সরকারি জমির এ গাছ ইউপি চেয়ারম্যান কিভাবে বিক্রয় করলেন আর ইউপি মেম্বার তা কিভাবে কিনলেন। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © dainikbangladeshsangbad 2019
Design By MrHostBD